চাঁদ দেখার সিদ্ধান্তে বিপাকে এতেকাফকারীগন

মঙ্গলবার সৌদি আরবে ঈদ উদযাপিত হাওয়ায় বাংলাদেশের সাধারণ মানুষ এবং এতেকাফকারী গণ ধরেই নিয়েছিলেন যে বুধবার বাংলাদেশে ঈদ উদযাপিত হবে। যার কারনে এতেকাফকারীগ বিছানা পত্র গুছিয়ে মসজিদ থেকে বাড়িতে ফেরার অপেক্ষায় ছিলেন। আত্মীয়-স্বজনও এতেকাফকারী কে মসজিদ থেকে বাড়িতে আনার জন্য প্রস্তুত ছিলেন। এমন সময় রাত পৌনে নটায় জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটি সিদ্ধান্ত ঘোষণা করলেন যে, দেশের কোথাও চাঁদ দেখা যায়নি সুতরাং বুধবার ঈদ হচ্ছে না, ঈদুল ফিতর উদযাপিত হবে বৃহস্পতিবার। ঘোষণা শুনে এতেকাফ কারী কে আনতে যাওয়া আত্মীয়রা বাসায় ফিরে আসেন। সারা দেশের মুসল্লিরা বুধবার রোজা রাখার নিয়ত তারাবির নামাজ আদায় করলেন। গৃহিণীরা সেহেরি প্রস্তুতি না থাকায় নতুন করে সেহরির রান্না বান্নার কাজ শেষ করলেন। এমন সময় রাত ১১ টায় জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটি আবারো বৈঠকে মিলিত হয়ে ঘোষণা করলেন যে, বৃহস্পতিবার নয়: বুধবার উদযাপিত হবে ঈদুল ফিতর। এমন ঘোষণার সময় মসজিদে এতেকাফ কারীদের বিপাকে পড়তে হয়। ময়মনসিংহ শহরের বড় মসজিদে খোঁজ নিয়ে দেখা যায়, সেখানে চার শতাধিক মুসল্লি এতেকাফে বসেন। তাদের অনেকের বাড়ি শহরের বাহিরে এবং বিভিন্ন উপজেলায়। এত রাতে যানবাহন না পাওয়াই বাড়ি ফিরতে পারছেন না অনেক মুসুল্লী। ঈদের দিনেও যানবাহন পাওয়া নিয়ে রয়েছে সংশয়। দশ দিন এতেকাফে থাকার পর পরিবার পরিজন এর সাথে ঈদ উদযাপনের জন্য অধীর আগ্রহে অপেক্ষারত মুসল্লিদের ঈদের আনন্দ অনেকটাই ফিকে হয়ে  গেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *